• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম
সুশৃঙ্খল নিয়ম-নীতির নামাজ অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখে মানুষের কৃতকর্ম ও গুনাহের ফল হিসেবে আখ্যা দেয়- বৃষ্টি চেয়ে নামাজ পড়ার নিয়ম বাশফুল থেকে চালের উৎপাদন সম্ভব- বাশ চাল পুষ্টিগুণ অনেক সমীচীন নয় দুনিয়ার গিবত পরকালের আপদ সারাদেশে কমছেই না গরমের তীব্রতা, ফের বাড়ল ‘হিট অ্যালার্ট’–এর মেয়াদ সালমানের বাড়িতে গুলি হামলার ঘটনায় দ্বিতীয় অস্ত্র উদ্ধার গত মঙ্গলবার সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় শিল্পী সমিতির দুঃখ প্রকাশ শেষ লিভারপুলের শিরোপা স্বপ্ন এভারটনের মাঠে হেরে প্রায়  এবার চেন্নাইয়ের মাঠেও দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছেন মুস্তাফিজও আমেরিকাকে বেকায়দায় ইরানের হাতে নতুন অস্ত্র, রেহাই পাবে না আমেরিকার ‘অদৃশ্য’ যুদ্ধবিমানও!

স্ত্রীকে বিদেশে পাঠিয়ে হিজড়া বেশে পরুষ : হিজড়া না তবু হিজড়া পরিচয়ে ৩ পুরুষ,শ্রীপুরে জনমনে প্রশ্ন!

Reporter Name / ৩২০ Time View
Update : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

স্মৃতি হাতড়ালে এখনো যে বিষয়টা অস্পষ্ট হয়ে ধরা পড়ে, শৈশবের অবুঝ চোখে সেইকালে বুঝে উঠতে পারতো না, কারো বাড়িতে সন্তান জন্ম নিলে শাড়ি পরা সত্ত্বেও বিচিত্র সাজ-পোশাক নিয়ে কোত্থেকে যেসব চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় ক্রোমোজোমের ত্রুটির কারণে জন্মগত যৌন প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, যাদের জন্মপরবর্তী লিঙ্গ নির্ধারণে জটিলতা দেখা দেয়, মূলত তারাই হিজড়া।
কিন্তু এই এক ব্যাতিক্রম ধরনের হিজড়া আল-আমিন। বাড়ি গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের গিলাশড় গ্রামের মৃত হেলাল উদ্দিনের ছেলে আল আমিন (২৬),হিজড়া না হয়েও হিজড়ার বেশে কাজ করছেন হিজড়ার দলে।
স্থানীয়রা বলেন,আল-আমিনের স্ত্রী সন্তান রয়েছে,স্ত্রীকে বিদেশে পাঠিয়ে দিয়ে ৫ বছরের কন্যা সন্তানকে নিয়ে হিজড়াদের দলে যোগ দিয়ে মানুষের কাছ থেকে টাকা উপার্যন করছে।
সাগরিকা হিজড়া বলেন,ওদের দলের কেওই হিজড়া না,তবু মানুষকে ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ওদের দলে ৩ জন রয়েছে,একজনের বাড়ি উপজেলার টেপিরবাড়ি গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে সাহাব উদ্দিন,বর্তমানে শাহানাজ নামে পরিচয়। আল-আমিন বর্তমানে জয়া নামে পরিচয়,নেত্রকোনা জেলার বারহাট্রা উপজেলার মৃত ইদ্রিছ আলীর ছেলে রাকিব হাসান,বর্তমানে নুপুর নামে পরিচয়,তারা সবাই নয়নপুর একটি বাসায় ভাড়া থাকেন সবাই।

ভয় দেখিয়ে টাকা নেওয়ার কথা অশিকার করে শাহানাজ হিজড়া বলেন,আমার দুই ছেলে সন্তান রয়েছে,আমার পুরুষঙ্গ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় আমি এই পথ বেছে নিয়েছি। জয়া নামে হিজড়া বলেন,আমার স্ত্রী কোথায় আছে তা আমি জানিনা,আমার ৫বছর বয়সের কন্যা সন্তান রয়েছে। বাবা মারা যাওয়ার পর এলাকাতে আমার বসত ভিটা কেড়ে নিয়ে ভের করে দিয়েছে। তাই ওদের ভয়ে আমি হিজড়া সেজে থাকি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা