• বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৬:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম

জামিন পেলেন ক্রিকেটার নাসির ও তামিমা

অনলাইন ডেস্ক / ৩৮৯ Time View
Update : রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২১

জামিন পাওয়ার পর আদালতে ক্রিকেটার নাসির, তামিমা সুলতানা ও সুমি আক্তার জামিন পাওয়ার পর আদালতে ক্রিকেটার নাসির, তামিমা সুলতানা ও সুমি আক্তারছবি: আসাদুজ্জামান তালাক যথাযথভাবে হয়নি জেনেও তামিমা সুলতানাকে বিয়ে করার অভিযোগে করা মামলায় জামিন পেলেন ক্রিকেটার নাসির

তামিমা সুলতানা ও তামিমার মা সুমি আক্তার। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম আজ রোববার এ আদেশ দেন। নাসিরের জামিনের বিষয়টি প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন তাঁর আইনজীবী কাজী নজিবুল্লাহ হীরু। আদালতসংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, এই মামলায় ক্রিকেটার নাসির হোসেন, তামিমা সুলতানা এবং সুমি আক্তার আজ রোববার সকালে আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। আদালত উভয়পক্ষের শুনানি নিয়ে তাঁদের ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিন মঞ্জুর করেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর ক্রিকেটার নাসির, তামিমা সুলতানা ও তাঁর মা সুমি আক্তারের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। আদালত সেদিন পিবিআইয়ের প্রতিবেদন আমলে নিয়ে মামলার আসামি ক্রিকেটার নাসিরসহ তিনজনকে ৩১ অক্টোবর আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারির আদেশ দেন। মামলার তদন্ত প্রতিবেদন প্রসঙ্গে পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ বলেন, তালাক যথাযথভাবে হয়নি জেনেও ক্রিকেটার নাসিরের তামিমাকে বিয়ে করার অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। ডাক বিভাগের মাধ্যমে তালাকের নোটিশটিও সঠিক নয়। এখানে জালিয়াতির আশ্রয় নেওয়া হয়েছে। তালাক না হওয়ার তথ্য জানা সত্ত্বেও তালাক হয়েছে, এমন তথ্য প্রচার করায় ক্রিকেটার নাসির, তাঁর স্ত্রী তামিমা ও তামিমার মা সুমি আক্তারের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ আনা হয়েছে প্রতিবেদনে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আইনবহির্ভূতভাবে বিয়ে করার অভিযোগে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তাঁর স্ত্রী তামিমা সুলতানার বিরুদ্ধে মামলা করেন তামিমার ‘সাবেক স্বামী’ রাকিব হাসান। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানার বিয়ে হয়। এরপর নতুন করে বিতর্ক ওঠে এই ক্রিকেটারকে ঘিরে। তামিমা সুলতানা তাঁর আগের স্বামীকে তালাক না দিয়ে নাসিরকে বিয়ে করেছেন। রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় এমন অভিযোগ তুলে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন রাকিব হাসান। জিডিতে তামিমার সঙ্গে তাঁর দীর্ঘ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন রাকিব। জিডিতে তিনি দাবি করেছেন, তামিমার সঙ্গে তাঁর (রাকিবের) ১১ বছরের সংসার। তাঁদের আট বছরের একটি মেয়েও আছে। কিন্তু সব ফেলে নাসিরকে বিয়ে করায় থানায় অভিযোগ করেন তিনি। ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে রাজধানীর উত্তরার একটি রেস্তোরাঁয় নাসির ও তামিমার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। নাসিরের স্ত্রী পেশায় কেবিন ক্রু। কাজ করেন বিদেশি একটি এয়ারলাইনসে। বিয়ের অনুষ্ঠানে পরিবারের লোকজন এবং ঘনিষ্ঠ আত্মীয়স্বজন উপস্থিত ছিলেন। নাসিরের বিয়ের অনুষ্ঠানে অনেক ক্রিকেটারও উপস্থিত ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নাসিরের বিয়ের ছবি ছড়িয়ে পড়ে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা