• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
সুশৃঙ্খল নিয়ম-নীতির নামাজ অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখে মানুষের কৃতকর্ম ও গুনাহের ফল হিসেবে আখ্যা দেয়- বৃষ্টি চেয়ে নামাজ পড়ার নিয়ম বাশফুল থেকে চালের উৎপাদন সম্ভব- বাশ চাল পুষ্টিগুণ অনেক সমীচীন নয় দুনিয়ার গিবত পরকালের আপদ সারাদেশে কমছেই না গরমের তীব্রতা, ফের বাড়ল ‘হিট অ্যালার্ট’–এর মেয়াদ সালমানের বাড়িতে গুলি হামলার ঘটনায় দ্বিতীয় অস্ত্র উদ্ধার গত মঙ্গলবার সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় শিল্পী সমিতির দুঃখ প্রকাশ শেষ লিভারপুলের শিরোপা স্বপ্ন এভারটনের মাঠে হেরে প্রায়  এবার চেন্নাইয়ের মাঠেও দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছেন মুস্তাফিজও আমেরিকাকে বেকায়দায় ইরানের হাতে নতুন অস্ত্র, রেহাই পাবে না আমেরিকার ‘অদৃশ্য’ যুদ্ধবিমানও!

কৃষ্ণসাগরে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ, যুদ্ধের আশঙ্কা রাশিয়ার

অনলাইন ডেস্ক / ৩৩০ Time View
Update : শনিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২১

আমেরিকার গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার ইউএসএস আরলিগ বার্ক নামে একটি যুদ্ধজাহাজ কৃষ্ণসাগরে প্রবেশ করেছে। এর প্রেক্ষিতে জাহাজটিতে নজরদারিতে রেখেছে রুশ সামরিক বাহিনী। এ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সীমিত পরিসরে যুদ্ধের আশঙ্কা করছে।

বৃহস্পতিবার ন্যাশনাল ডিফেন্স সেন্টারের বরাত দিয়ে রাশিয়ার বার্তা সংস্থা তাস এ খবর জানিয়েছে। রাশিয়া ও আমেরিকার মধ্যে যখন নানা ইস্যুতে উত্তেজনা চলছে তখন একথা জানালো রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। গত ২৫ নভেম্বর মার্কিন ড্রেস্ট্রয়ার কৃষ্ণসাগরে প্রবেশ করে এবং তার ওপর রুশ সামরিক বাহিনী নজরদারি শুরু করেছে। এদিকে, মার্কিন ৬ষ্ঠ নৌবহর দাবি করছে, নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে আরলিগ বার্ক কৃষ্ণসাগরে প্রবেশ করেছে এবং সেখানে অবস্থানকালে আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ জলপথের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য ডেস্ট্রয়ারটি ন্যাটো মিত্রদের সঙ্গে কাজ করবে। চলতি মাসের প্রথম দিকে মার্কিন নেভাল কমান্ড শিপ ‘মাউন্ট হুইটনি’ কৃষ্ণসাগরে একইভাবে প্রবেশ করেছিল। সে সময় রুশ সামরিক বাহিনী সে জাহাজকেও পর্যবেক্ষণে রাখে। অন্যদিকে, ভিয়েনায় সামরিক নিরাপত্তা ও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক রুশ প্রতিনিধিদলের প্রধান কনস্টান্টিন গ্যাব্রিলভ বলেছেন, রাশিয়া ও ইউরোপকে বিভক্ত করার লক্ষ্য নিয়ে মার্কিন সামরিক বাহিনী এই যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়েছে এবং ছোট আকারের যুদ্ধের আশংকা রয়েছে। আমেরিকা ও ইউক্রেনের সরকার নিজেদের অভ্যন্তরীণ সমস্যা থেকে বিশ্ববাসীর দৃষ্টি ভিন্ন দিকে নিতে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারে। সূত্র : পার্সটুডে


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা