• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
সুশৃঙ্খল নিয়ম-নীতির নামাজ অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখে মানুষের কৃতকর্ম ও গুনাহের ফল হিসেবে আখ্যা দেয়- বৃষ্টি চেয়ে নামাজ পড়ার নিয়ম বাশফুল থেকে চালের উৎপাদন সম্ভব- বাশ চাল পুষ্টিগুণ অনেক সমীচীন নয় দুনিয়ার গিবত পরকালের আপদ সারাদেশে কমছেই না গরমের তীব্রতা, ফের বাড়ল ‘হিট অ্যালার্ট’–এর মেয়াদ সালমানের বাড়িতে গুলি হামলার ঘটনায় দ্বিতীয় অস্ত্র উদ্ধার গত মঙ্গলবার সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় শিল্পী সমিতির দুঃখ প্রকাশ শেষ লিভারপুলের শিরোপা স্বপ্ন এভারটনের মাঠে হেরে প্রায়  এবার চেন্নাইয়ের মাঠেও দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছেন মুস্তাফিজও আমেরিকাকে বেকায়দায় ইরানের হাতে নতুন অস্ত্র, রেহাই পাবে না আমেরিকার ‘অদৃশ্য’ যুদ্ধবিমানও!

পতেঙ্গায় ভূমি দস্যুদের কবলে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ,সুষ্ঠু বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন মুজিব উল্লাহ

মোঃ রিয়াজ উদ্দিন স্টাফ রিপোর্টার / ৩৩৪ Time View
Update : বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১

জীবনের সঞ্চয় ও ধার-কর্জ করে ২৭/০৬/২০০৬ সালে ৭৯৯ নং সাফ কবলা দলিল মূলে ০২ গন্ডা ০৩ কড়া ভিটি ভূমি খরিদ করেন আমার স্বামী আবদুল হাই। নজর পড়ে ভূমি দস্যুদের প্রথম থেকে জায়গার দখল ছেড়ে দিতে হুমকি দমকি দিয়ে আসছে।

গত ১০ বছর ধরে মানসিক নির্যাতন, হুমকি দমকি, একের পর এক অতর্কিত হামলা চালিয়ে আসছে। শেষ সম্বল ভিটি ভূমিটাও আমার কাছ থেকে কেঁড়ে নিতে চাইছে স্হানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল বারেক, জহুর আলম, ইসমাইল সওদাগর, মনসুর,বাল্লা’র সাঙ্গপাঙ্গরা। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব এস রহমান হল কক্ষে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে কাঁদতে কাঁদতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মোস্তাফিজুর রহমানের কন্যা মনোয়ারা বেগম।
আমার পিতার বেসামরিক মুক্তিযোদ্ধা গেজেট নং -৩৬৩৪। আমার স্বামী – আবদুল হাই,তৎপিতা- হাজী আবদুর মোনাফ,তৎমাতা- আম্বিয়া খাতুন, সাকিন- চর পাড়া, দক্ষিণ পতেঙ্গা, থানা – পতেঙ্গা, চট্টগ্রাম। গত ১৫/০৯/২০ ইং তারিখে কাউন্সিলরের লোকজন প্রকাশ্য বলেন জমির দখল ছেড়ে দিয়ে অন্যত্রে চলে যেতে নচেৎ আমার স্বামীকে প্রাণে মেরে ফেলবে, আমি স্হানীয় পতেঙ্গা থানায় জিডি করতে গেলেও ভুমি দস্যুদের প্রভাবের কারণে ওসি জিডি গ্রহণ করেননি। পরবর্তী ২৯/০৯/২০ ইং তারিখে আমরা আমাদের জায়গার সীমানা দেয়াল নির্মাণ করতে গেলে ৪০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবদুল বাকেরর নির্দেশে ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী অস্ত্র -শস্ত্র নিয়ে আমার স্বামী ও আমার দেবরের উপর হামলা চালিয়ে আহত করে। উক্ত জমিতে থাকা সাইনবোর্ড ও উপরে ফেলে দেয়। ঘটনা সৃয় আমরা উপায়ন্তর না পেয়ে ৯৯৯ এ কল করলে এস আই মোঃ বাবুল আক্তার সরজমিনে পরিদর্শনে এসে আমাদেরকে থানায় জিডি করার পরামর্শ দেয়।থানায় গেলে ক্রমিক নং ১৪৪৬ তাং ২৯/৯/২০২০ ইং সম্বলিত একটা টোকেন প্রদান করে। আমাদের কোনো জিডি কপি প্রদান করা হয়নি এবং তৎপরবর্তী সময় হতে অদ্যাবধি উক্ত জিডি সংক্রান্তে কোনো কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়নি।
আমার বর্তমান ভিটি রক্ষায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ( মহানগর) চট্টগ্রাম এর আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি আইনে ১৪৫ ধারামতে প্রতিকার পাওয়ার আবেদন করে একটা মামলা করেন আমার স্বামী, যাহার মামলা নং ১২১৮/২০২১। সুষ্ঠ ভাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে সহযোগিতা পাওয়ার আশায় গত ১৮ মার্চ ২১ চট্টগ্রাম র্যাব-৭ অধিনায়ক, ২৪ মার্চ ২১ উপ- পুলিশ কমিশনার (বন্দর), ১৮ মার্চ ২১ চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক বরাবরেও আবেদন করি। উপরন্তু ভূমি দস্যুগণ কিছুদিন নিরব থাকলেও আবারও জায়গায় দখলের পায়তারা শুরু করছে এবং হুমকি প্রদানের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছেন।
কোনো উপায়ন্তর না পেয়ে শেষ গত ২৩/১১/২০২১ ইং তারিখ পতেঙ্গা থানায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করি,যাহার নাম্বার -১০৪১/২১। আপনাদের ( সাংবাদিক ভাইদের) মাধ্যমে আমি সরকারের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, মাননীয় ভূমিমন্ত্রী, পুলিশ আইজিপি, র্যাব মহাপরিচালক, ও চট্টগ্রামের সকল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে সুষ্ঠু বিচারের প্রার্থনা করছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা