• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
একুশের প্রথম প্রহরে ফুলপুরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন” কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতিরাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নবীনগরে পরান কম্পিউটার ইনস্টিটিউটের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত। পূর্বধলায় জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত সাংসদ খাদিজাতুল আনোয়ার সনির সংসদ সদস্য পদ বাতিল চেয়ে রীট! আবারও বিয়ের গুঞ্জন, নিশ্চুপ ফারাজ! ফুলপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ছাগলনাইয়ায় খামারি হত্যা: গ্রেপ্তার ২ ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানে নিহত সেনবাগের ৪ শহীদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি আজো মেলেনি চট্টগ্রামে ৩১তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য( CITF)এর মেলার উদ্বোধন

একটি নিখোঁজ সংবাদ মোঃ সুজনের সন্ধান চাই,,,

মোঃ ইলিয়াস হাওলাদার ,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি / ১১ Time View
Update : সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

 

নাঙ্গলকোট থানাদধীন আদ্রা ইউনিয়নের পূজকরা এলাকা থেকে মোঃ সুজন নামের একটি ছেলে হারানো গিয়েছে ।

গত ১৩ অক্টোবর ২০২৩ ইংরেজি রোজ শুক্রবার দুপুর ১২ ঘটিকার সময় নাঙ্গলকোট থানাধীন আদ্রা ইউনিয়নের পূজকরা এলাকা থেকে সুজন নামের একটি ছেলে নিখোঁজ হয়েছে। সুজনের পিতা মোহাম্মদ মনির মাতা মোছাম্মৎ বিবি কুলসুম গ্রাম পূজকরা ইউনিয়ন আদ্রা থানা নাঙ্গলকোট জেলা কুমিল্লা

ছেলে সুজনকে হারিয়ে পিতাঃ মোঃ মনির হোসেন ও মাতা বিবি কুলসুম দিশেহারা হয়ে পড়েছেন তারা এ বিষয়ে থানায় জিডি করার পরেও ছেলের কোন সন্ধান না পেয়ে সারাক্ষণ কান্না ভেঙে পড়ছেন বাবা মনির কান্না বিজড়িত কন্ঠে গণমাধ্যমকে বলেন আমার ছেলে সুস্থ এবং স্বাভাবিক আমার নিজ বাড়ি থেকে আমার গ্রাম পূজকরা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মসজিদের মাঠে খেলাধুলার পরে সে আর বাড়ি ফেরেননি আমার আশে পাশের সকল গ্রামে এবং আমার থানা ও জেলায় সব জায়গায় অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাহার সন্ধান পায়নি আমার ছেলে হারিয়ে যাওয়ার সময় তার পরনে ছিল হলুদ রঙের প্যান্ট কালো রঙের গেঞ্জি পায়ে ছিল কালো রঙের স্যান্ডেল আমি সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে দিশেহারা হওয়ার পরে আমি ৪ /১১ /২০২৩ ইংরেজি আমার থানা নাঙ্গলকোটে একটি সাধারন ডায়েরি করেছি জিডি নং ১৪৭ সুজনের পিতা মোঃ মনির হোসেন আরো বলেন আমার বিশ্বাস আমার ছেলে বেঁচে আছে হয়তো সে কোথাও না কোথাও আছে তাই যদি কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি আমার এই সন্তানের খোঁজ পেয়ে থাকেন তাহলে দয়া করে এই নম্বরে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো মোবাইল ০১৯২৫-১৫১৫৯৪

হারিয়ে যাওয়া সাধারণ ডায়রির বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার এএসআই ইমাম হোসেনকে জিজ্ঞেস করলে তিনি গণমাধ্যম কে বলেন আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে তদন্ত করে দেখি আমাদের আইনগতভাবে সুজন নামের ছেলেটিকে খোঁজার শ্রেষ্ঠ অব্যাহত রয়েছে ।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা